খেলাধুলা

বিপিএল ২০২৪ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স প্লেয়ার তালিকা, সময়সূচী & ভ্যেনুর ধারণ ক্ষমতা

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স স্কোয়াড! চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স হল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলের প্রতিষ্ঠাতা দল। বিপিএল যখন ২০১২ সালে সর্বপ্রথম আত্মপ্রকাশ করে তখন ৬টি দল নিয়ে বিপিএল শুরু হয়েছিল। সেই ছয়টি দলের একটি ছিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। আজকে আমরা ২০২৪ সালের বিপিএলের চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স স্কোয়াড সম্পর্কে জানব।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স স্কোয়াড

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স স্কোয়াড

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স এবার সবচেয়ে সাদামাটা দল সাজিয়েছে। কেননা তারা দেশীয় খেলোয়াড় হিসেবে তেমন বড় কোন তারকাকে নিজেদের দলে বেড়াতে পারেনি। কিন্তু বিদেশী তারকাদের দলে ভেরাতে সক্ষম হয়েছে। নিচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স এর পূর্ণাঙ্গ স্কোয়াড দেওয়া হলো।

  • শুভাগত হোম,
  • জিয়াউর রহমান,
  • নিহাদউজ্জামান
  • শহিদুল ইসলাম
  • মোহাম্মদ হারিস,
  • নাজিবউল্লাহ জাদরান,
  • মোহাম্মদ হাসনাইন,
  • স্টিভ এসকানজি
  • তানজিদ হাসান তামিম,
  • আল-আমিন হোসেন,
  • সৈকত আলী,
  • ইমরানুজ্জামান,
  • কার্টিস ক্যাম্ফার,
  • বিলাল খান,
  • শাহাদাত হোসেন দিপু,
  • সালাউদ্দিন শাকিল

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স সময়সূচী

তারিখ ম্যাচ ভেন্যু সময়
১৯ জানুয়ারি সিলেট–চট্টগ্রাম শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা সন্ধ্যা ৭টা
২০ জানুয়ারি খুলনা-চট্টগ্রাম শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা সন্ধ্যা ৬টা ৩০
২২ জানুয়ারি চট্টগ্রাম-ঢাকা শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা দুপুর ১টা ৩০
২৭ জানুয়ারি বরিশাল-চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সিলেট দুপুর ১টা ৩০
২৯ জানুয়ারি সিলেট-চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সিলেট দুপুর ১টা ৩০
০২ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা-চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সিলেট সন্ধ্যা ৭টা
০৬ ফেব্রুয়ারি বরিশাল-চট্টগ্রাম শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা সন্ধ্যা ৬টা ৩০
১০ ফেব্রুয়ারি রংপুর-চট্টগ্রাম শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা দুপুর ১টা ৩০
১৩ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা-চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম দুপুর ১টা ৩০
১৬ ফেব্রুয়ারি রংপুর-চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম সন্ধ্যা ৭টা
১৭ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম-ঢাকা জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম সন্ধ্যা ৬টা ৩০
২০ ফেব্রুয়ারি খুলনা-চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম দুপুর ১টা ৩০
২৫ ফেব্রুয়ারি এলিমিনেটর (তৃতীয় দল বনাম চতুর্থ দল) শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা দুপুর ১টা ৩০
২৫ ফেব্রুয়ারি ১ম কোয়ালিফায়ার (১ম দল বনাম দ্বিতীয় দল) শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা সন্ধ্যা ৬টা ৩০
২৭ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার (এলিমিনেটরে জয়ী বনাম ১ম কোয়ালিফায়ারে পরাজিত দল) শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা সন্ধ্যা
০১ মার্চ প্রথম কোয়ালিফারে জয়ী বনাম দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জয়ী দল শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা সন্ধ্যা ৬টা ৩০

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স বিপিএল হিস্ট্রি

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স এখন পর্যন্ত মোট ৩ বার বিপিএলে তাদের নাম পরিবর্তন করেছে। তারা সর্বপ্রথম ২০১২ সালে বিপিএলে অংশগ্রহণ করেছিল চিটাগাং কিংস নামে। এরপর ২০১৫ সালে এর মালিকানা স্বত্ব হস্তান্তরিত হলে নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় চিটাগাং ভাইকিংস। এরপর ২০১৯ সালে পুনরায় মালিকানা সত্য পরিবর্তন করে বর্তমান নাম রাখা হয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।(চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স স্কোয়াড)

 চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স বিপিএলে তাদের অর্জন বলতে ২০১৩ সালে ঢাকা গ্লাডিয়েটরসের সঙ্গে ফাইনালে অংশগ্রহণ করে সেখানে রানার্সআপ হয়। এরপর থেকে দলটি বিপিএলে তেমন ভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের অতীত হিস্ট্রি দেখলে মনে হয় দলটি শুধুমাত্র প্রতিবার বিপিএলে অংশগ্রহণ করার জন্য খেলে থাকে। কেননা আমরা যদি ২০২৪ সালের প্লেয়ার ড্রাফ্ট লক্ষ্য করি তাহলে দেখব চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স সবচেয়ে কম দামি ফ্রাঞ্চাইজ এর মধ্যে এক নাম্বারে। কেননা তারা এবারের বিপিএলের জন্য মাত্র ১৬ জন খেলোয়াড়কে দলে ভিরিয়েছে।  আর এই জন্য খরচ করেছেন মাত্র ১ কোটি ৭০ লাখ টাকা। যেখানে অন্যান্য দল খরচ করেছে প্রায় ৩ থেকে ৪ কোটি টাকারও বেশি।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের কোচ এবং মালিক

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বর্তমান কোচ তুষার ইমরান। যিনি একজন পরীক্ষিত সৈনিক এবং সকল শ্রেণীর ক্রিকেটারদের সঙ্গে তেনার রয়েছে সুসম্পর্ক এবং অনেক পরিক্ষিত ম্যাচগুলোতে তিনি দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। এছাড়া চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বর্তমান মালিক আক্তার গ্রুপ। যেটি বাংলাদেশের একটি স্বনামধন্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

এবারের  বিপিএলে ভ্যেনু সংখ্যা

এবারের বিপিএল মাত্র ৩টি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। স্টুডিয়ামগুলি হল ঢাকা শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম এবং সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। আমরা এসব স্টেডিয়ামের ধারণক্ষমতা নিচে টেবিল আকারে তুলে ধরলাম।

 আপনি যদি এবারের বিপিএল দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন। তাহলে অবশ্যই অগ্রিম টিকিট সংগ্রহ করুন এবং এসব স্টেডিয়ামে খেলা দেখার আনন্দ উপভোগ করুন।

স্টেডিয়ামের নাম উদ্বোধন ধারণ ক্ষমতা
ঢাকা শেরে-ই -বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম ২০০৬ সাল ২৬ হাজার
চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম ২০০৬ সাল ২২ হাজার
সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম ২০০৭ সাল ১৮,৫০০ জন

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।