Uncategorized

মুখের ব্রণ দূর করুন মাত্র ৭ দিনে জেনে নিন সহজ কিছু উপায়

মুখের ব্রণ দূর করার উপায়! বয়সন্ধিকাল থেকে ছেলে মেয়েদের মুখে একটি কমন সমস্যা দেখা দেয়। আর তা হল মুখের মধ্যে ব্রণ। এই ব্রণ মুখের সৌন্দর্য নষ্ট করে এবং মুখের মধ্যে কালো দাগের সৃষ্টি করে।

মুখের ব্রণ দূর করার উপায়

যা দেখতে অত্যন্ত কুৎসিত লাগে। তাই ছেলেমেয়েরা ব্রণ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেক ধরনের কেমিক্যাল জাতীয় ক্রিম ব্যবহার করে থাকে। এর ফলে ব্রণ সমস্যা তো দূর হইনা বরং মুখের সৌন্দর্য আরো নষ্ট করে এবং মুখে বিভিন্ন ধরনের কালো দাগ দেখা দেয়। অনেক সময় ত্বক পুড়ে যেতেও দেওয়া যায়। আজকে আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে জানাবো মাত্র ৭ দিনের মধ্যেই আপনি কিভাবে ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে পারেন সে সম্পর্কে।

ব্রণ কখন হয়

ব্রণ সাধারণত বয়সন্ধিকালের সময়ে হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে যখন মেয়েদের বয়স ১৪ থেকে ১৬ বছর এবং ছেলেদের বয়স ১৬ থেকে ১৯ বছর হয় এই সময়টাতে তখন এই সমস্যাটা অনেক বেশি দেখা দেয়। কারো কারো ক্ষেত্রে ২০ বছর বয়সের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত ব্রণ হওয়ার প্রবণতা অনেক বেশি দেখা দেয়। তবে এরপর থেকে ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কমতে থাকে। কিছু সংখ্যক ছেলে বা মেয়েদের ক্ষেত্রে ৩০ থেকে ৪০ বছর বয়স পর্যন্ত ব্রণ হওয়ার প্রবণতা থাকে। ব্রণ সাধারণত মুখেই দেখা যায়। তবে কোন কোন ক্ষেত্রে ঘাড়, পিঠ এবং বুকেও হতে পারে। এই সমস্যাটি সবচেয়ে বেশি গরমের সময় দেখা যায়।

ব্রণ কি কারনে হয়

মুখের ব্রণ দূর করার উপায় – ব্রণ বিভিন্ন কারণে হতে পারে। তবে বয়সন্ধিকালের সময়ে যখন ছেলে মেয়েদের শরীরে হরমোন ক্ষরণের মাত্রা ভারসাম্য হীনতায় ভোগে তখন ত্বকের তেল গ্রন্থি ও  সেবাম ক্ষরণ বেড়ে যায় ফলে এই সমস্যা দেখা দেয়। আর এর কারণ হলো হরমোন ক্ষরণ বন্ধ হয়ে গেলে শরীরের মধ্যে লোমকূপগুলো বন্ধ হয়ে যায়। ফলে সেখানে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ ঘটে আর এভাবে জীবাণুর বিষক্রিয়ায় ত্বকে ব্রণের সৃষ্টি হয়। ব্রণের জীবাণুর নাম প্রোপাইনো ব্যাকটেরিয়াম অ্যাকনে।

এবার চলুন জেনে নেই ঘরোয়া উপায়ে ব্রণ দূর করার নিয়ম

ঘরোয়া উপায়ে আপনি চাইলেই ব্রণ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। এজন্য কিছু সামান্য উপকরণ প্রয়োজন ।আর এই পদ্ধতিটি আপনি যদি নিয়মিত অনুসরণ করেন তাহলে দেখবেন মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে আপনার মুখের অধিকাংশ ব্রণ দূর হয়ে গেছে এবং আপনার ত্বককে আরো লাবণ্য ও উজ্জ্বল দেখাচ্ছে। তাহলে চলুন জেনে নেই ব্রণ সমস্যার ঘরোয়া উপায়।

লেবুর রস

আমরা সকলেই জানি লেবুর রসের রয়েছে সাইট্রিক এসিড। যা শরীরের ক্ষত পূরণ করার জন্য অত্যন্ত কার্যকারী। যেহেতু ব্রণ শরীরের একটি অংশে ক্ষত সৃষ্টি করে তাই আপনি ঘুমানোর আগে কিছু তুলোতে লেবুর রস ভিজিয়ে নিন এবং মুখে লাগিয়ে রাখুন। এভাবে সারা রাত রেখে দিবেন। পরদিন সকালে দেখবেন তুলো সরালেই আপনার মুখ থেকে ব্রণ খসে পড়বে। এভাবে কয়েক দিন করতে থাকুন। দেখবেন আপনার ব্রণ সমস্যা অনেকাংশে লাঘব হবে।

মধু ও সরিষা

মুখের ব্রণ দূর করার জন্য মধু এবং সরিষার জুড়ি মেলা ভার। আমরা সকলেই জানি সরিষার মধ্যে থাকে  স্যালিসিলিক অ্যাসিড যা খুব সহজে ব্রনের জীবনকে ধ্বংস করে থাকে। সামান্য সরিষার গুরোর সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে প্রথমে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এরপর ১৫ মিনিট মুখে দিয়ে রাখতে হবে। এরপর ধুয়ে ফেললে দেখবেন মুখের ব্রণ সমস্যা কমতে শুরু করেছে এবং মুখের ব্রণের কালো দাগ গুলো দূর হয়ে যাচ্ছে।

টমেটো স্লাইস

আমরা সকলেই জানি টমেটো স্লাইস এর মধ্যে রয়েছে  অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকের মধ্যে ইনফেকশন জনিত সমস্যা গুলো দূর করতে সহায়তা করে। আপনি দিনে অন্তত দুইবার টমেটো স্লাইস দিয়ে মুখ ভালো করে ঘষে নিন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে টানা কয়েকদিন করলে দেখবেন আপনার ত্বকের মধ্যে ব্রণের জীবাণু ধ্বংস হয়ে যাবে এবং ত্বককে আরো উজ্জ্বল ও আকর্ষণীয় দেখাবে।

রসুনের রস

ব্রণ সৃষ্টিকারী জীবন ধ্বংস করতে রসুনের রস অত্যন্ত উপকারী। এজন্য আপনি প্রথমে কয়েকটি রসুন শিলপাটায় বেটে রস বের করে নিন। এরপর মুখের যে অংশে ব্রণ উঠেছে সেই অংশে কয়েক ফোঁটা রস লাগিয়ে দিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর মুখের মধ্যে রসুনের রস শুকিয়ে গেলে তা ধুয়ে ফেলুন। এভাবে টানা কয়েকদিন করলে দেখবেন ব্রণ সৃষ্টিকারী জীবাণু আপনার মুখ থেকে চিরতরে ধ্বংস হয়ে যাবে।

ডিমের সাদা অংশ

যাদের মুখে অনেক বেশি ব্রণ সমস্যা রয়েছে তারা চাইলেই এই রেসিপিটি ব্যবহার করতে পারেন। এজন্য আপনি প্রথমে মুখের মধ্যে লেবুর রস লাগিয়ে দিবেন। এরপর ডিম থেকে ডিমের সাদা অংশ আলাদা করে মুখে মাক্সের মত করে লাগিয়ে দিন। এভাবে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। সম্পূর্ণ ডিমের সাদা অংশ শুকিয়ে গেলে মুখ ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে মুখের ব্রণ দূর হওয়ার পাশাপাশি কালচে দাগ গুলো দূর হয়ে যাবে।

বন্ধুরা আপনি যদি আপনার মুখের ব্রণ সমস্যা থেকে চিরতরে মুক্তি পেতে চান তাহলে আমাদের দেখানো রেসিপিগুলো ব্যবহার করতে পারেন। আমরা শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে বলতে পারি এগুলো আপনি টানা কয়েক সপ্তাহ ব্যবহার করলে আপনার মুখ থেকে চিরতরে ব্রণ দূর হয়ে যাবে এবং আপনার ত্বককে আরো উজ্জ্বল ও আকর্ষণীয় দেখাবে। এছাড়াও আপনি যদি লাইভস্টাইলের আরো এরকম নিত্য নতুন বিষয় সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্টের মাধ্যমে জানিয়ে দিন ধন্যবাদ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।